দুই জেলায় ১১ অটোয় অগ্নিসংযোগ, ব্যাপক ভাঙচুর

0

চট্টগ্রাম বিভাগের দুই জেলা ফেনী ও লক্ষ্মীপুরে অন্তত ১১টি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় আগুন দিয়েছে অজ্ঞাতরা।

এ সময় আরও ১৫টি অটোরিকশা ভাঙচুর করা হয়। এতে অটোরিকশার দুই যাত্রী সামান্য আহত হয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানা গেছে, বুধবার সকাল সাড়ে নয়টা এবং মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার দিকে এসব ঘটনা ঘটে।

লাগাতার অবরোধের সঙ্গে ডাকা বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোটের হরতালের মধ্যে এসব ঘটনা ঘটল।

বুধবার সকাল নয়টা থেকে সাড়ে নয়টার মধ্যে ফেনী শহরের মিজানরোড, টাঙ্ক রোড, ডায়েবেটিকস হাসপাতাল ও ফেনী জে হক টাওয়ারের সামনে ছয়টি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় আগুন দেয় অজ্ঞাতরা। এ সময় তারা আরও ১৩টি অটোরিকশায় ভাঙচুর চালায়।

এ সময় কমপক্ষে সাতটি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

ফেনী সদর থানার ওসি মাহবুব মোর্শেদ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হামলাকারীদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার দিকে লক্ষ্মীপুরে পাঁচটি অটোরিকশায় আগুন দিয়েছে অজ্ঞাতরা। এ সময় তারা দুটি অটোরিকশায় ভাঙচুর চালায়। এতে দুই যাত্রী আহত হয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, রাত সাড়ে আটটার দিকে সদর উপজেলার জকসিন-পোদ্দার বাজার সড়কের বালাইশপুর এলাকায় মোটর সাইকেলযোগে তিনজন দুর্বৃত্ত দুটি অটোরিকশায় হামলা চালিয়ে এক পর্যায়ে পেট্রোল দিয়ে অগ্নিসংযোগ করে।

এ সময় তারা ওই সড়কের আরও দুটি অটোরিকশায় ভাঙচুর চালায়। এতে অটোযাত্রী নজরুল ইসলাম ও মাহবুবুল আলম আহত হন।

অপরদিকে, দত্তপাড়া বশিকপুর সড়কের কাশিমপুর এলাকায় একইভাবে দুটি অটোরিকশায় অগ্নিসংযোগ করে দুর্বৃত্তরা।

পরে খবর পেয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানা পুলিশ গিয়ে রাস্তার পাশের খাল থেকে একটি পুড়ে যাওয়া অটোরিকশা উদ্ধার করে। তবে এসব ঘটনায় পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে দত্তপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই জামাল হোসেন জানান, দত্তপাড়া এলাকায় দুটি অটোরিকশায় অগ্নিসংযোগের ঘটনা তিনি শুনেছেন। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

Share.

Leave A Reply