মালয়েশিয়ায় ৩০ গণকবরে শত শত বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গার মরদেহ

0

থাইল্যান্ডের পর এবার হতভাগ্য অভিবাসীদের গণকবরের সন্ধান মিলেছে মালয়েশিয়ায়, যেখানে শত শদ বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গার লাশ রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে মালয়েশিয়ার দি স্টার অনলাইন জানিয়েছে, থাই সীমান্তবর্তী মালয়েশিয়ার সীমান্ত শহর পাডাং বেসার ও ওয়াং কেলিয়ানে সন্ধান পাওয়া ৩০টি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে যাতে শত শত রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশি অভিবাসীর মৃতদেহ রয়েছে।

এর মধ্যে একটি গণকবরেই শতাধিক মরদেহ রয়েছে।

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আহমদ জাহিদ হামিদি জানিয়েছেন, দেশটির উত্তরাঞ্চলের পেদাং বেসার এলাকায় মানব পাচারের ব্যবহৃত বন্দিশিবিরগুলোর কাছেই গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে।

সম্প্রতি পুলিশের অভিযান শুরুর পর বন্দিশিবিরগুলো পরিত্যাক্ত রেখে পালিয়ে যায় পাচারকারীরা।

কুয়ালালামপুর থেকে আল জাজিরার প্রতিনিধি জানিয়েছেন, শুক্রবার রাত থেকে গণকবরের স্থানে পুলিশ ও ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের দল অবস্থান করছে।

উদ্ধার করা শতাধিক লাশের পরিচয় সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। লাশগুলো কি রোহিঙ্গা, না বাংলাদেশিদের তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

স্থানীয় পুলিশের প্রধান তান শ্রী খালিদ আবু বাকার সোমবার সংবাদ সম্মেলনে গণকবরের ব্যাপারে বিস্তারিত জানাবেন বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম।

মালয়েশিয়ার পেদাং বেসার জেলা পুলিশ সদর দপ্তরের এক কর্মকর্তা জানান, গণকবরটি সংরক্ষিত এলাকায় অবস্থিত, যেখানে বেসামরিক লোকের প্রবেশাধিকার নেই। বর্তমানে পুলিশ ওই স্থানটিকে ঘিরে রেখেছে।

এর আগে থাইল্যান্ডে বেশ কয়েকটি গণকবরের সন্ধ্যান পাওয়া যায়। যেখানকার অধিকাংশ লাশ রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশির। পরে ব্যাপারটি সারা বিশ্বে আলোচনার ঝড় তোলে।

Share.

Leave A Reply