রাষ্ট্রীয় আয়োজনে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা

0

তৎকালীন ক্ষমতাসীন দল বিএনপি’র রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে ও রাষ্ট্রীয় আয়োজনে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা হয়েছে। এরাই (বিএনপি) বিচারকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য এই মামলার আলামত নষ্ট করেছে। এ বছরের মধ্যেই এই মামলা নিস্পত্তি হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত আইভি রহমানের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ কথা জানান।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘অনেকে বলে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা হয়েছে। আমি বলি, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় নয়, রাষ্ট্রীয় আয়োজনে এ হামলা হয়েছে। এ হামলা তৎকালীন ক্ষমতাসীন দল বিএনপির রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত ছিল। ওই সময় রাষ্ট্র আহত-নিহতদের পাশে ছিল না। বরং তারা (রাষ্ট্র) হামলাকারীদের পালিয়ে যেতে সহায়তা করেছে। হামলার আলামত নষ্ট করেছে।’

বিএনপির সমালোচনা করে কামরুল ইসলাম বলেন, ‘এতদিন মনে করতাম জামায়াত জঙ্গিদের সহায়তা করে। এখন দেখি বিএনপিও জঙ্গিদের মদদদাতা। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের তিনজন সদস্যকে জঙ্গি অর্থায়নের দায়ে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে।’

মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী আশরাফুন্নেছা মোশাররফের সভাপতিত্বে ও প্রচার সম্পাদক শিরিন আখতারের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদক ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সংসদ সদস্য শিরিন নাঈম পুনম প্রমুখ।

Share.

Leave A Reply