রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির যাচ্ছে হাতিয়া দ্বীপে

0

বাংলাদেশ সরকার মিয়ানমার সীমান্তবর্তী রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরগুলোকে দক্ষিণাঞ্চলীয় দ্বীপ হাতিয়ায় স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করছে।

‘মিয়ানমার রিফিউজি সেল’র সরকার নির্বাচিত মুখপাত্র অতিরিক্ত সচিব অমিত কুমার বাউল বুধবার বার্তা সংস্থা এএফপিকে এ তথ্য দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দ্রুততম সময়ে বাংলাদেশ সরকার বঙ্গোপসাগরের হাতিয়া দ্বীপে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির স্থানান্তরিত করবে।’

কারণ হিসেবে অমিত কুমার উল্লেখ করেন, ‘সরকার মনে করছে, মিয়ানমার সংলগ্ন শরণার্থী শিবির কক্সবাজার কেন্দ্রিক পর্যটন শিল্পে নেতিবাচক প্রভাব রাখছে।’

তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির অবশ্যই সরিয়ে নেওয়া হবে। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় অনানুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরুও করা হয়েছে।’

কক্সবাজারের মিয়ানমার সীমান্তবর্তী দুটি শরণার্থী শিবিরে বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক নিবন্ধনকৃত প্রায় ৩২,০০০ রোহিঙ্গা অবস্থান করছেন।

তবে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের নেতৃত্বস্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন, রোহিঙ্গাদের হাতিয়ায় স্থানান্তর পরিস্থিতিকে আরো ঘোলাটে করে তুলবে বলেই তারা মনে করছেন।

তাদের দাবি, বাংলাদেশ সরকার এবং আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলো যেন শরণার্থী শিবিরে থাকা অবস্থাতেই মুমূর্ষু রোহিঙ্গাদের ইস্যুতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

মোহাম্মাদ ইসলাম নামে রোহিঙ্গা নেতা বলেন, ‘এমনিতেই বছরের পর বছর তারা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সরকারের এ ধরনের সিদ্ধান্তে তাদের দুঃখ-কষ্ট আরো বাড়বে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ সরকার ও আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলোকে বলব- এখান (কক্সবাজার) থেকেই যেন আমাদের সমস্যার সমাধান করা হয়।’

সাম্প্রতিক সময়ে অভিবাসী সংকট নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এক মন্তব্যের পরই এ ধরনের খবর এলো। বাংলাদেশের অভিবাসীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘যারা সাগর পাড়ি দিয়ে অভিবাসী হচ্ছেন, তারা মানসিকভাবে অসুস্থ। তাদেরও বিচার করা হবে।’

Share.

Leave A Reply