‘র‌্যাব-পুলিশ দিয়ে নীলনকশার নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়েছে সরকার’

0

সরকার নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে র‌্যাব-পুলিশের সহায়তায় কেন্দ্র দখল করে নীলনকশার নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।

সোমবার বিকেল সোয়া ৫টায় নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, ‘সরকার নীলনকশা বাস্তবায়ন করলে চলমান আন্দোলন আরো জোরদার করা হবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়েই দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। সেই আন্দোলনে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হবে।’

মওদুদ বলেন, ‘সবার প্রত্যাশা ছিলো- ঢাকা ও চট্টগ্রামের নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে। কিন্তু দুঃখের সঙ্গেই বলতে হয়, সরকার লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তো দূরের কথা, আমাদের এজেন্টরা কেন্দ্রে যেতে পারবে কিনা সেই আশঙ্কা রয়ে গেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা অনেক প্রতিকূলতার মধ্যে নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। নির্বাচনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। দক্ষিণের মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাস ভোটারদের সামনে যেতে পারেননি। দক্ষিণ-উত্তরের ৩৬জন কাউন্সিলর প্রার্থী পুলিশের ভয়ে আত্মগোপনে। তারাও নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারেননি।’

বিএনপির ঢাকা উত্তর সিটির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির এই সমন্বয়ক অভিযোগ করেন, ‘প্রার্থীদের নির্বাচনী অফিসগুলোতে হামলা করা হয়েছে। খালেদা জিয়ার বহরে বহরে হামলা করা হয়েছে। এতোকিছুর পরেও সরকার ও নির্বাচন কমিশন চুপ করে আছে। আমরা তাদের ভূমিকায় মর্মাহত।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন ২৬ তারিখ সেনা মোতায়েনের কথা বলেছিলেন। আমরা কিছুটা স্বস্তি পেয়েছিলাম। তারপরেও আমরা দাবি করলাম-সেনাবাহিনীকে বিচারিক ক্ষমতা দিতে হবে। কিন্তু সরকারের কারণে নির্বাচন কমিশনের বিষয়ে সিদ্ধন্ত পরিবর্তন করলেন। এই অনিশ্চয়তার মধ্যে আমরা নির্বাচনে এগিয়ে যাচ্ছি।’

আশঙ্কা প্রকাশ করে মওদুদ বলেন, ‘সরকার সমর্থিত প্রার্থীকে জয়ী করতে নির্বাচন কমিশনের সহায়তায় র‌্যাব-পুলিশ দিয়ে নীলনকশার নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এর সত্যতা কালকেই দেখা যাবে।’

এ সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে সরকারের আজ্ঞাবহ এবং প্রতিষ্ঠান হিসেবেও নির্বাচন কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ হয়ে কাজ করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

মওদুদ অভিযোগ করে বলেন, ‘সরকার সমর্থকরা বিরোধী দলের এজেন্টদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দিচ্ছে। বলে আসছে- তারা যেন কেন্দ্র না যায়। কেন্দ্রে গেলে তাদেরকে বের করে দেয়া হবে।’

ইতোমধ্যে উত্তর সিটি থেকে সাত জন পোলিং এজেন্টসহ বিরোধী দলের ৬৯জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বিএনপি প্রার্থীরা টাকা ছড়াচ্ছে কিনা সাংবাদিকরা জানতে চাইলে- মওদুদ বলেন, ‘এটা ডাহা মিথ্যা কথা। টাকা উড়ানোর বিষয়টি ভিত্তিহীন। আমাদের নেতাকর্মীরা পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে, তারা কিভাবে টাকা বিলাবে?’

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রি. জেনারেল আ স ম হান্নান শাহ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন ও সহদপ্তর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম।

Share.

Leave A Reply