শফিক রেহমান বিএনপিকে দেখালেন আন্দোলনের পথ

0

বিএনপিপন্থি বুদ্ধিজীবী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও ‘আদর্শ ঢাকা আন্দোলন’র আহ্বায়ক প্রফেসর এমাজউদ্দীন আহমেদ বলেছেন, ‘২৮ তারিখের নির্বাচনে বিএনপি বিজয়ী হলে পরবর্তী নির্বাচনেও বিজয়ী হবে। দেশের পরবর্তী রাজনৈতিক অবস্থা কেমন হবে তাও নির্ভর করছে ২৮ এপ্রিলের ওপর।’

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের কারাবন্দির দুই বছর উপলক্ষে আয়োজিত সংহতি সভায় তিনি এ কথা বলেন। আমার দেশ পত্রিকার অফিস খুলে দেয়া ও মাহমুদুর রহমানের মুক্তি দাবি করা হয় সভায়।

অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক শফিক রেহমান, কলামিস্ট ফরহাদ মজহার, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, বর্তমান সভাপতি শওকত মাহমুদ, মহাসচিব এমএ আজিজ, সাংবাদিক নাঈমুল ইসলাম খান, সাবেক সচিব আ ন হ আকতার হোসেন, ড. সুকোমল বড়ুয়া, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল হাই শিকদার, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান প্রমুখ।

এমাজউদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘২৮ এপ্রিল ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন যদি সঠিকভাবে হয় তাহলে সরকার পরবর্তী তিন থেকে চারমাসের মধ্যে জাতীয় নির্বাচন দিতে বাধ্য হবে।’

আন্দোলন অহিংস হবে নাকি সহিংস হবে তা চিন্তা করে দেখার জন্য এ সময় শফিক রেহমান প্রফেসর এমাজউদ্দীনের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় অহিংস আন্দোলনের পাশাপাশি সহিংস আন্দোলনও ছিল। কোথাও সহিংস বিজয় হয়েছে, কোথাও অহিংস বিজয় হয়েছে।’

শফিক রেহমান সাগর-রুনি হত্যা, মাহমুদুর রহমান, ও সালাহ উদ্দিনের ঘটনায় পৃথক কমিটি করে আন্দোলন করারও আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘এতে সরকারের প্রতি চাপ বাড়বে। তাদের জীবন অশান্ত হয়ে পড়বে। শেষ পর্যন্ত দাবি মানতে বাধ্য হবে।’

কলামিস্ট ফরহাদ মজহার বলেন, ‘সমাজের চিন্তার ভিন্নতা আছে বলেই মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হয়।’

Share.

Leave A Reply